সীমান্তে নিজের বুকে গুলি চালালেন বিজিবি সদস্য

আজ সকালে নওগাঁর সাপাহার উপজেলা সীমান্তে কর্তব্যরত তানভির আহমেদ (২৬) নামে এক বিজিবি সদস্য নিজের অস্ত্র দিয়ে বুকে গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনাটি আজ বৃহস্পতিবার ভোরে সাপাহার উপজেলার সুন্দরইল সীমান্ত ফাঁড়িতে ঘটেছে। নিহত তানভীর নড়াইল জেলার শেখ আরজুনুর ছেলে বলে জানা গেছে। তবে তিনি কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। এ বিষয়ে বিজিবির পক্ষ থেকে তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

জানা যায়, আজ বৃহস্পতিবার ভোরে বিজিবির সিপাহি তানভীর সবার অজান্তে ক্যাম্প অভ্যন্তরে নিজের কাছে থাকা রাইফেল বুকে ঠেকিয়ে পা দিয়ে ট্রিগার চেপে গুলি চালায়। এ সময় গুলির শব্দে সঙ্গে সঙ্গে ঘটনা জানতে পেরে সকাল ৭টার দিকে ক্যাম্পের অন্য বিজিবি সদ্যস্যরা আহত তানভীরকে উদ্ধার করে সাপাহার হাসপাতালে নিয়ে আসে।

এদিকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তার শ্বাস-প্রশ্বাস চালু থাকায় বিজিবি সদস্যরা উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত তাকে তাদের গাড়িতে তুলে হাসপাতাল ত্যাগ করে। রাস্তায় কিছু দূর যাওয়ার পর তানভীরের অবস্থার অবনতি দেখা দিলে বিজিবি সদস্যরা পুনরায় তাকে সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এরপর কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আবু হানিফ তাকে দেখে মৃত ঘোষণা করে।

এ বিষয়ে নওগাঁর সাপাহার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. রুহুল আমিন জানান, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। আমরা তার মৃতদেহ ময়নাতদন্ত করার জন্য বিজিবির কাছে হস্তান্তর করেছি।

এ ব্যাপারে বিজিবির বরাত দিয়ে সাপাহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারেকুর রহমান সরকার জানান, তানভীর নামের ওই বিজিবি সদস্য তার কাছে থাকা রাইফেল দিয়ে গুলি করে নিজে আত্মহত্যা করেছে। এ ব্যাপারে সাপাহার থানায় ইউডি মামলা দায়ের হলে পুলিশের পক্ষ থেকে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে মরদেহ ময়নাতদন্ত করার জন্য বিজিবির তত্ত্বাবধানে নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ব্যাপারে নওগাঁ ১৬ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল আসাদুজ্জামান বলেন, পারিবারিকভাবে কোনো ক্ষোভ থেকে এমন ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে, বিষয়টি তদন্ত করে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করা হবে।