বিশ্বকাপ সম্প্রচার বন্ধ সৌদি আরবে

এবার কাতারে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ফুটবল বিশ্বকাপ। এবারের আসরের সবচেয়ে চমক আর্জেন্টিনাকে ২-১ গোলে হারিয়ে দেয় সৌদি আরব। এমন সংবাদে উল্লাসে মেতে উঠার কথা পুরো জাতির। তবে এমন এক উল্লাসের সময় সৌদি আরবেই বরং সম্প্রচার হচ্ছে না চলমান ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ। গতকাল শনিবার ২৬ নভেম্বর বার্তাসংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

গতকাল শনিবার এএফপি’র প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফুটবল বিশ্বকাপের অফিশিয়াল স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম কোনো ধরনের ব্যাখ্যা ছাড়াই সৌদি আরবে সম্প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে। সৌদি আরবে ফুটবল বিশ্বকাপের অফিশিয়াল স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হিসেবে রয়েছে টড টিভি। এটি কাতারি সম্প্রচারকারী ‘বেইন’ মিডিয়া গ্রুপের মালিকানাধীন। সৌদি আরবসহ পাঁচটি উপসাগরীয় দেশের মধ্যে সংকটের সময় টড টিভি সৌদিতে নিষিদ্ধ ছিল।

তবে ২০২১ সালের অক্টোবরে ফের এ প্ল্যাটফর্মকে মধ্যপ্রাচ্যের এ দেশটিতে সম্প্রচারের অনুমতি দেয়া হয়। এদিকে সংবাদমাধ্যম বলছে, কাতার বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচটিতে যখন সৌদি আরব আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে দেয় তা দেখতে পারেনি সে দেশবাসী। মূলত বিশ্বকাপের উদ্বোধনের পর থেকেই সৌদি আরবে সম্প্রচারে সমস্যা শুরু হয়।

এ সমস্যার মাঝে সম্প্রচারকারী সংস্থা বেইন নিজেদের অংশীদার এবং গ্রাহকদের পাঠানো একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘সৌদি আরবে বিশ্বকাপের সম্প্রচারে সমস্যা হচ্ছে। সমাধান এ মুহূর্তে আমাদের হাতের বাইরে। এ বিষয়ে পরবর্তী তথ্য জানিয়ে দেয়া হবে।’ অবশ্য বিশ্বকাপ সম্প্রচারে সমস্যা নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনো তথ্য জানায়নি সৌদি সরকার। এছাড়া সৌদি সরকারও সম্প্রচারে বিঘ্ন ঘটা সম্পর্কে মন্তব্য করার অনুরোধে সাড়া দেয়নি। একই সঙ্গে সম্প্রচারকারী বেইনও এ বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছে।

এদিকে সৌদির বাসিন্দারাও এএফপিকে জানিয়েছে, ২০ নভেম্বর বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার পর থেকেই তারা সম্প্রচার দেখতে পারছেন না। স্ক্রিনে প্রদর্শিত বার্তায় বলা হচ্ছে, ‘দুঃখিত, আপনার অনুরোধ করা পেজটি মিডিয়া মন্ত্রণালয়ের নিয়ম লঙ্ঘন করছে।’ কাতারের সঙ্গে ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে সব কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে উপসাগীয় পাঁচ দেশ। দেশগুলোর মধ্যে সৌদি আরবও ছিল। সেই সময়ই কাতারের সম্প্রচারকারী সংস্থাকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।