বিএনপির সমাবেশ সুষ্ঠুভাবে করতেই ছাত্রলীগের সম্মেলন ৬ ডিসেম্বর: কাদের

আজ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ১০ ডিসেম্বর বিএনপি যেন সুষ্ঠুভাবে ঢাকায় সমাবেশ করতে পারে সে জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ছাত্রলীগের ৮ ডিসেম্বরের কেন্দ্রীয় সম্মেলন ৬ তারিখে করা হয়েছে। আজ রবিবার পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। ওবায়দুল কাদের রাজধানীর নিজ বাসভবন থেকে সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

এ সময় ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি একটা অজুহাত দেখাচ্ছে যে, ৮ তারিখে ছাত্রলীগের সম্মেলন, কী করে তারা ১০ তারিখে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করবেন। আজকে সেজন্য প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগের সম্মেলন ৬ তারিখে নিয়ে এসেছেন। সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত থাকার কথা আছে। আমরা বাঁধা দিচ্ছি না, আমরা বাঁধা দেব না। কিন্তু আগুন নিয়ে যদি খেলতে চান, যদি লাঠি নিয়ে খেলতে চান তার সমুচিত জবাব দেবো জনগণকে সঙ্গে নিয়ে।’

এদিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ না করার বিষয়ে বিএনপি বলেছে, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ৮ ও ৯ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগের জাতীয় সম্মেলন হবে। পরদিন সেখানে কীভাবে মহাসমাবেশ করবে বিএনপি?

যেখানে এ ধরনের মহাসমাবেশ হয়, সেখানে অন্তত এক সপ্তাহ আগে থেকেই মঞ্চ তৈরিসহ সব প্রস্তুতি নিতে হয়। সমাবেশ ঘিরে নেতাকর্মীরাও আসতে শুরু করেন। সরকারের এ ধরনের প্রস্তাব সাংঘর্ষিক এবং হাস্যকর বলেও মনে করেন দলটির নেতারা।

এদিকে ছাত্রলীগের এই সম্মেলনের জন্য ৩ ডিসেম্বর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিল। তবে পরে তা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে স্থগিত করা হয়। সে সময় সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছিল, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয় সফরে জাপান সফরের যাওয়ার কথা ছিল। পরে অবশ্য সেই সফর বাতিল হয়।