ইউক্রেনে আটকে পড়া বাংলাদেশী নাবিকদের বাঁচার আকুতি

ইউক্রেনের অলভিয়া বন্দরে আটকে পড়া বাংলাদেশি জাহাজ ‘বাংলার সমৃদ্ধি’ তে রকেট হামলায় জাহাজের থার্ড ইঞ্জিনিয়ার মো. হাদিসুর রহমান আরিফ (২৯) নিহত হন। হামলার পর জাহাজে থাকা বাকি নাবিকরা আতঙ্কে রয়েছেন। জীবন বাঁচানোর জন্য সরকারের কাছে আকুতি জানিয়েছেন তারা।

বুধবার (২ মার্চ) স্থানীয় সময় ভোর ৫টা ১০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৯টায়) অলভিয়া বন্দরে রকেট হামলা হয়। এতে আগুন ধরে যায় জাহাজটিতে। পরে জাহাজে থাকা সবাই মিলে আগুন নেভায়। এ হামলায় নিহত হন হাদিসুর।

জাহাজে থাকা নাবিকরা জানিয়েছেন, তারা সবাই মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। জাহাজে পাওয়ার সাপ্লাই নেই। জরুরি পাওয়ার সাপ্লাই দিয়ে তারা চলছেন। সেটা বন্ধ হয়ে গেলে তাদের জাহাজে থাকাই কঠিন হয়ে যাবে।

এক ভিডিও বার্তায় জাহাজটির সেকেন্ড ইঞ্জিনিয়ার রবিউল আউয়াল বলেন, আমি বাংলার সমৃদ্ধির সেকেন্ড ইঞ্জিনিয়ার। আমাদের জাহাজে একটু আগে রকেট হামলা হয়েছে। একজন অলরেডি ডেড। আমাদের জাহাজে পাওয়ার সাপ্লাই নেই। ইমার্জেন্সি পাওয়ার সাপ্লাইয়ে আমরা চলছি। আমরাও সবাই মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছি। দয়া করে আমাদের বাঁচান।

প্রসঙ্গত, সিরামিকের কাঁচামাল ‘ক্লে’ পরিবহনের জন্য জাহাজটি তুরস্ক থেকে গত ২২ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেন বন্দরে পৌঁছায়। তবে ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর সেখানেই আটকা পড়ে জাহাজটি। জাহাজে ২ নারীসহ বাংলাদেশের ২৯ জন নাবিক রয়েছেন। বন্দরটিতে বিভিন্ন দেশের আরও প্রায় ২০টি জাহাজ আটকে আছে।