আয়ারল্যান্ডকে না করে শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত প্রায় চূড়ান্ত

বাংলাদেশ জাতীয় দল যে শ্রীলঙ্কা সফরে যাবে এটা একপ্রকার নিশ্চিত। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বর্তমান উপলব্ধি হলো, যত ফিটনেস ও স্কিল ট্রেনিংই করা হোক না কেন, ম্যাচ খেলার বিকল্প নেই। ম্যাচ খেলে খেলেই আবার স্বাভাবিক ছন্দে ফেরা সম্ভব, তাই আগামীতে কোন সিরিজ খেলার চিন্তা।

এক্ষেত্রে কোনো বিদেশ সফর দিয়েই আবার জাতীয় দলের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমের সূচনায় আগ্রহী বিসিবি। প্রাথমিকভাবে শ্রীলঙ্কার পাশাপাশি আয়ারল্যান্ডেও যাওয়ার চিন্তা ছিল। জানা গেছে, আইরিশ বোর্ড আগামী দুই-তিন মাসের ভেতরে স্থগিত হওয়া ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছে। বিসিবিও প্রাথমিকভাবে আগ্রহ প্রকাশ করেছিল।

কিন্তু ভেতরের খবর, সে চিন্তা থেকে সরে এসেছে বিসিবি। আয়ারল্যান্ড সফরে না গিয়ে শ্রীলঙ্কায় খেলতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত প্রায় চূড়ান্ত। আয়ারল্যান্ড বাদ দিয়ে শুধু শ্রীলঙ্কায় খেলতে যাওয়া কেন? এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে জানা গেল, মূলত ঠাণ্ডার কথা মাথায় রেখে সেপ্টেম্বর, অক্টোবর ও নভেম্বরে আয়ারল্যান্ড না যাওয়ার সিদ্ধান্ত।

বলার অপেক্ষা রাখে না, ঐ সময়টা আয়ারল্যান্ডে শীতের প্রকোপ বেশি থাকে। আর তখন খেলতে যাওয়ার অর্থ করোনা সংক্রমণের বাড়তি ঝুঁকি। মূলত এ কারণেই আয়ারল্যান্ড সফর বাতিলের চিন্তা। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটি চেয়ারম্যান আকরাম খান আজ রবিবার গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, আগামী দু-তিন মাসের ভেতরে জাতীয় দলের আয়ারল্যান্ড যাওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

আকরামের কথা, ‘আমরা আয়ারল্যান্ড যাওয়ার চিন্তা থেকে মোটামুটি সরে এসেছি। কারণ যে সময়টায় যাওয়ার কথা হচ্ছিল, তখন আয়ারল্যান্ডে বেশ ঠাণ্ডায় পড়ে যাবে। আর প্রচন্ড শীতের ভিতরে করোনা সংক্রমনের ঝুঁকি খুব বেশী। আমরা অযথা ঝুঁকি নিতে চাইনা। আমরা এমন কোনো সফর করতে চাই না, যেখানে ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্যঝুঁকি থাকে। আমরা ক্রিকেটারদের জীবন ও স্বাস্থ্যের নিরাপত্তার কথা ভেবেই আয়ারল্যান্ড না গিয়ে শ্রীলঙ্কায় খেলতে যাওয়ার কথা ভাবছি।’