আমি একটা গাধা, ভেবেছিলাম সারাদেশের মানুষ তার পেছনে ঝাঁপিয়ে পড়বে: কাদের সিদ্দিকী

গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিএনপিকে নিয়ে গণফোরাম সভাপতি কামাল হোসেনের জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যাওয়ায় নিজেকে গাধা বললেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আবদুল কাদের সিদ্দিকী। গতকাল বুধবার ২ মার্চ জাতীয় প্রেস ক্লাবের মিলনায়তনে জেএসডি আয়োজিত ২ মার্চ ঐতিহাসিক পতাকা উত্তোলন দিবসের ৫১তম বছর ও বাঙালির তৃতীয় জাগরণের মাইলফলক শীর্ষক এক স্মৃতিচারণমূলক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় কাদের সিদ্দিকী বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে দুর্ভাগ্যবশত বেঁচে থাকার পরেও সেই সম্মান পাইনি। সুবর্ণজয়ন্তী পালন করা হয়েছে, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। কিন্তু যাকে যে সম্মান দেওয়ার কথা, তা তাকে দেওয়া হয়নি।

তিনি আরও বলেন, শেখ হাসিনার সরকার আমি চাই না, তারেক রহমানের সরকারও আমি চাই না। আমি একটা গাধা মানুষ। সবার শেষে আমি কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্টে গিয়েছিলাম। মনে করেছিলাম, কামাল হোসেনের মত বর্ষীয়ান একজন নেতা তিনি নেতৃত্ব দেবেন। সারাদেশের মানুষ তার পেছনে ঝাঁপিয়ে পড়বে। তার যে আন্তর্জাতিক পরিচয়, তাতে সারাবিশ্ব তার পেছনে থাকবেন। কিন্তু কামাল হোসেনই দাঁড়ালেন না, তার পেছনে কে দাঁড়াবে? কেউ দাঁড়ায়নি।

এ সময় তিনি বলেন, বিএনপি মনে করেছিল, ভোটে দাঁড়ালেই সব হয়ে যাবে। সারাদেশের মানুষ তাদের ভোট দেবে। তারা মনে করলো, জামায়াত আছে, ক্যাডারভিত্তিক একটা দল। তাদের ক্যাডাররা সব ভাসিয়ে দেবে। আমাদের কিছু করতে হবে না। জামায়াত ভাবলো এত বড় দল বিএনপি। বিএনপি সব করে ফেলবে। আমাদের আবার কী কাজ? মাঝখান দিয়ে কয়েকটি সিট আমাদের নিয়ে নেওয়া। আলোচনা হলো- এ জোটে জামায়াত নেই, থাকলোও না। কিন্তু বেনামিতে ২৭-২৮ সিট তাদের ছেড়ে দেওয়া হলো। ঐক্যজোট ভাঙলো, দেশের মানুষ বোকা হলো। আমার মনে হয়, এমন দ্বিচারিতা করলে কিয়ামত পর্যন্ত কিছু হবে না।