অবশেষে ইউক্রেন ইস্যুতে মুখ খুললেন এরদোগান

এবার ইউক্রেনের সংকট নিরসনে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ও ন্যাটো সামরিক জোট ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েপ এরদোগান। ইউক্রেনে রুশ হামলায় ন্যাটোর জবাবের সমালোচনা করে এরদোগান বলেন, ন্যাটো জোটের আরও দৃঢ়সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত ছিল। কিন্তু ন্যাটো ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই সংকট মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়েছে।

এদিকে ন্যাটোর সদস্য দেশ তুরস্কের প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, রাশিয়ার পদক্ষেপকে নিন্দা জানানো যথেষ্ট নয়। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, আজ শুক্রবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ন্যাটোর যে শীর্ষ বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে, সেই বৈঠকে একটা সিদ্ধান্তমূলক পদক্ষেপ নেওয়া হবে। খবর- বিবিসি বাংলার।

এদিকে রুশ সামরিক অভিযানের প্রথম দিনে দেশটিতে অন্তত ১৩৭ জন মারা গেছেন বলে দাবি করেছে ইউক্রেন। রুশ বাহিনীকে প্রতিহত করতে ইউক্রেন একাই যুদ্ধ করছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। এই যুদ্ধে পশ্চিমা বন্ধুদের পাশে পাননি বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে রাশিয়ার নৃশংস হামলা বন্ধ করতে এবং ইউক্রেনকে সহায়তার জন্য পশ্চিমা মিত্রদের কাছে তাই আবার আবেদন জানিয়েছেন জেলেনস্কি। প্রথম থেকে ইউক্রেনকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেওয়ার হলেও যুদ্ধের মাঠে দেশটিকে সহায়তায় এগিয়ে আসেনি পশ্চিমারা। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ কয়েকটি পশ্চিমা দেশ রাশিয়ার ওপর শুধু নিষেধাজ্ঞা দিয়েই থেমে গেছে। এ জন্য হতাশা প্রকাশ করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট।