যুক্তরাষ্ট্রের সামনে আরও ভয়াবহ দিন আসছে: ট্রাম্প

669

করোনাভাইরাসে ভয়াল থাবা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে করোনা আক্রান্ত হয়ে শনিবার প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ১ হাজার ২২৪ জন। এটি যুক্তরাষ্ট্র তো বটেই, মহামারি শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত যেকোনও দেশের জন্যই সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড।

ক্রমবর্ধমান করোনার কবলে আগামী দিনগুলোতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আরও অনেক মানুষের মৃত্যু হবে জানিয়ে গভীর উদ্বেগ ও সতর্কতা প্রকাশ করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

স্থানীয় সময় শনিবার (৪ এপ্রিল) হোয়াইট হাউজে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন ট্রাম্প। রোববার (৫ এপ্রিল) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এ সপ্তাহে করোনা-জর্জরিত আমেরিকা সবচেয়ে ভয়াবহ দিনগুলোতে প্রবেশ করতে পারে জানিয়ে ট্রাম্প বলেন, দুর্ভাগ্যবশত (করোনা সংক্রমণের ফলে) আরও অনেক মানুষের মৃত্যু হবে। আশঙ্কা হচ্ছে যে, সম্ভবত এটি সবচেয়ে কঠিন সময় হতে চলেছে। এই সপ্তাহ আর আগামী সপ্তাহের মধ্যবর্তী সময়টা।

এ ভাইরাসকে কঠোরভাবে মোকাবিলার প্রতিশ্রুতি জানিয়ে ট্রাম্প বলেন, আমরা করোনা কবলিত অঙ্গরাজ্যগুলোতে বিপুল মাত্রায় সামরিক সহায়তা দিতে কাজ করছি। হাজার হাজার সেনা, চিকিৎসক, নার্স যুক্ত করার কাজ চলছে।

শিগগিরই নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে প্রায় ১ হাজারসহ করোনায় জর্জরতি অন্যান্য রাজ্যেও বিপুল সেনা ও চিকিৎসককে যুক্ত করা হবে বলে জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

জন হপকিনস ইউনিভার্সিটির তথ্যমতে, যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনায় ৮ হাজার ৪৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে, আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ১২ হাজার ৭৬ জন।

দেশটিতে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে নিউ ইয়র্কে। অঙ্গরাজ্যটিতে এ পর্যন্ত অন্তত ২ হাজার ৬২৪ জন মারা গেছেন। নিউ জার্সিতে মারা গেছেন ৪৫৪ জন, মিশিগানে ২৫২ ও ওয়াশিংটনে ২০০ জন।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে ১৪ হাজার ৯৯৭ জন সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন।