দুর্গাপুরে ছাত্রলীগের সম্পাদকের বিরুদ্ধে চাঁদা দাবির অভিযোগ

318

নিজেস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিকের বিরুদ্ধে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে। কমিটি পূর্ণাঙ্গ করে দেয়ার নাম করে দুর্গাপুর পৌরসভা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে এই চাঁদা দাবি করেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক।

চাঁদা দাবির প্রেক্ষিতে ছাত্রলীগ নেতা আতিকের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পৌরসভা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শাকিল খান ও সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, দুর্গাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং দুর্গাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর সংগঠনের প্যাডে সোমবার লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগ দেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে পৌরসভা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শাকিল খান ও রাজু আহমেদ বলেন, ২০১৯ সালের ৬ সেপ্টেম্বর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাজেদুর রহমান মিঠু ও সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে দুই সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটি ঘোষণা করেন। এছাড়া এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দিতে বলেন। এরপর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকের কাছে পূর্ণাঙ্গ কমিটির একটি তালিকা জমা দেয়া হয়। কিন্তু ৬ মাস হয়ে গেলেও সে কমিটি অনুমোদন দেননি। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সম্মতি দিলেও সাধারণ সম্পাদক আতিক ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। ছাত্রলীগ নেতা আতিক বলেন, তিন লাখ টাকা খরচ করে আমি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হয়েছি। তোমরা যদি ৫০ হাজার টাকা আমাকে চাঁদা না দাও তাহলে আমি পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দেবো না।

এ ব্যাপারে কমিটি পূর্ণাঙ্গ আবেদন ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, দুর্গাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং দুর্গাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অভিযোগের একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিকের সাথে কথা বলা হলে তিনি দাবি করেন, চাঁদা দাবির বিষয়টি ভিত্তিহীন। পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকায় পৌর শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সম্পাদক যাদের নাম দিয়েছিল তাদের ভেতরে অনেকেই বিএনপি জামায়াতের সমর্থক। তাই কমিটি অনুমোদন দেয়নি। বিষয়টি নিয়ে একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।