স্বামীর ঠিকানাকে স্ত্রীর স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে উল্লেখ না করার দাবি

144

গত ১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংকের মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী পরিচালক (জেনারেল) পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। মহাব্যবস্থাপক নূর-উন-নাহার স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তির ১৪ নম্বর শর্তে বলা হয়, ‘বিবাহিত মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রে স্বামীর স্থায়ী ঠিকানাকে প্রার্থীর স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে উল্লেখ করতে হবে।’

এদিকে, “বিবাহিত মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রে স্বামীর স্থায়ী ঠিকানাকে প্রার্থীর স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে উল্লেখ করার শর্ত” কেন আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

চার সপ্তাহের মধ্যে জনপ্রশাসনসচিব, বাণিজ্যসচিব, অর্থ বিভাগের সচিবসহ পাঁচজনকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আইনুন্নাহার সিদ্দিকা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুব আলম।

এ ব্যাপারে আইনুন্নাহার সিদ্দিকা যুগান্তরকে বলেন, ১ ডিসেম্বর জারি করা বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির ১৪ নম্বর শর্তে বলা হয়, ‘বিবাহিত মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রে স্বামীর স্থায়ী ঠিকানাকে প্রার্থীর স্থায়ী ঠিকানা হিসেবে উল্লেখ করতে হবে।’

তিনি বলেন, এটি সংবিধানে উল্লিখিত নারী-পুরুষ সমতার লঙ্ঘন। সংবিধানের ২৮ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে,

‘(১) কেবল ধর্ম, গোষ্ঠী, বর্ণ, নারী-পুরুষভেদ বা জন্মস্থানের কারণে কোনো নাগরিকের প্রতি রাষ্ট্র বৈষম্য প্রদর্শন করিবেন না।

(২) রাষ্ট্র ও গণজীবনের সর্বস্তরে নারী-পুরুষের সমান অধিকার লাভ করিবেন।’